বিশ্বকাপে কেমন হল ভারতীয় দল, জেনে নিন প্লেয়ারদের

Updated: 22 May 2019 12:50 IST

২০০৩-এ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভারত রানার্স হয়েছিল। এ ছাড়া ১৯৮৭, ১৯৯৬ ও ২০১৫তে সেমিফাইনালে পৌঁছেছিল ভারত।

World Cup 2019: Know Your Favourite Team, How Balanced Are Team India
দু’বার বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত © এএফপি

বিশ্বকাপের (ICC World Cup 2019) প্রস্তুতি সারা হয়ে গিয়েছে। এ বার নেমে পড়ার পালা। দু'বারের চ্যাম্পিয়নরা এ বার আবার নতুন করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্ন দেখছে বিরাট কোহলির (Virat Kohli) নেতৃত্বে। গত দু'বছরের ভারতীয় দলের (Indian Cricket Team) সাফল্যই এই স্বপ্ন দেখাচ্ছে। ১৯৮৩তে কপিল দেবের ভারতের বিশ্বকাপ জয়ের ২৮ বছর পর ২০১১তে এমএস ধোনির (MS Dhoni) ভারত বিশ্বকাপ জিতেছিল। ২০০৩-এ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভারত রানার্স হয়েছিল। এ ছাড়া ১৯৮৭, ১৯৯৬ ও ২০১৫তে সেমিফাইনালে পৌঁছেছিল ভারত। কিন্তু এ বারের ভারতকে গোটা ক্রিকেট বিশ্বই ফেভারিট ধরছে।

বিরাট কোহলি (অধিনায়ক)

গত দু'মরসুম ধরে দারুণ ফর্মে রয়েছেন বিরাট কোহলি। ২০১৭-১৮ মরসুমে একদিনের আন্তর্জাতিকে ১৮৩৩ রান করেছেন তিনি, গড় ৯৭.৫, স্ট্রাইকরেট ৯৮.৮৪। এই মরসুমে তাঁর রান ১২৫৫, গড় ৬৯.৮৩ এবং স্ট্রাইকরেট ৯৬.১৮৫।

এ বার কোহলি তাঁর তৃতীয় বিশ্বকাপ খেলতে নামছেন। এখনও পর্যন্ত বিশ্বকাপে‌র ১৭ ম্যাচে কোহলির রান ৫৮৭। গড় ৪১.৯২। ২০১৫তে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১০৭ রানের ইনিংসই তাঁর সেরা।

রোহিত শর্মা (সহ-অধিনায়ক)

বিরাটের পথ ধরেই রোহিতও ওয়ান ডেতে দুরন্ত পারফর্মেন্স করেছেন। ২০১৭-১৮ মরসুমে তাঁর ব্যাট থেকে এসেছে ১৪১৬ রান। গড় ৬৪.৬৫৫, স্ট্রাইকরেট ৯৬.৬০৫। ২০১৮-১৯-এও সেই ফর্ম ধরে রেখেছেন তিনি। এই মরসুমে তাঁর রান ১৪১৬, গড় ৭৬.৬৩ এবং স্ট্রাইকরেট ৯৩.৩৪য় ২০১৭-র ১৩ ডিসেম্বর শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে অপরাজিত ২০৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন তিনি।

২০১৫ বিশ্বকাপেও দারুণ খেলেছিলেন তিনি। ৩৩০ রান এসেছিল তাঁর ব্যাট থেকে, গড় ৪৭.১৪। কোয়ার্টার-ফাইনালে  বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ১৩৭ রানের ইনিংস খেলেছিলেন তিনি।

শিখর ধাওয়ান

২০১৭-১৮ মরসুমটা খুবই ভাল গিয়েছিল ধাওয়ানের। ১২৭১ রান করেছিলেন যার গড় ছিল ৫৫.৬, স্ট্রাইকরেট ১০২.৯৮৫। কিন্তু এই মরসুমে সেই সাফল্য তিনি ধরে রাখতে পারেননি। ২০১৮-১৯ মরসুমে তাঁর রান ৯৯৪।গড় ৪৪.৫২ এবং স্ট্রাইকরেট ৯৬.৬৩৫। তবুও ওপেনিংয়ের জন্য তাঁর বিকল্প এখনও তৈরি হয়নি ভারতীয় দলে।

২০১৫ বিশ্বকাপটাও দারুন গিয়েছিল ধাওয়ানের। ৫১.৫ গড় নিয়ে ৪১২ রান করেছিলেন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধ ১৩৭ রানের ইনিংস খেলেছিলেন।

লোকেশ রাহুল

রাহুল পরিচিত তাঁর টেস্ট স্কিলের জন্য। যে কারনে তিনি একদিনের দলে কখনও ঢুকেছেন কখনও বেরিয়েছেন। ২০১৬তে জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে অভিষেক হয়েছিল রাহুলের। অভিষেকেই সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন তিনি। ১৪ ম্যাচে তিনি ৩৪৩ রান করেছেন,গড় ৩৪।৩, স্ট্রাইকরেট ৮০.৮৯।

এটাই লোকেশ রাহুলের প্রথম বিশ্বকাপ।

বিজয় শঙ্কর

২০১৮র জানুয়ারিতেই ওডিআই অভিষেক হয়েছিল শঙ্করের অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে। কিন্তু তেমন কিছু করতে পারেননি তিনি। কিন্তু আইপিএল-এ তাঁর ফর্ম খুবই ভাল ছিল। ২৬ ম্যাচে রাহুলের রান ৪৫২, গড় ৩৪.৭৬, স্ট্রাইকরেট ১৩৪.৫২। আইপিএল-এ তাঁর সর্বোচ্চ রান ৬৩। করেছিলেন গুজরাত লায়ন্সের বিরুদ্ধে।

বিজয়ের এটাই প্রথম বিশ্বকাপ।

এমএস ধোনি

এই বছরের শুরুতে ফর্মে ফিরেছেন এমএস ধোনি। আইপিএল-এও সেই ফর্ম তিনি ধরে রেখেছিলেন। ২০১৭-১৮তে ধোনি ৬৯২ রান করেছিলেন, গড় ছিল ৮০.৯৯৫ এবং স্ট্রাইকরেট ৮১.৫৩৫। কিন্তু ২০১৮-১৯-এ সেটা দাঁড়িয়েছে ৫৩৩ রান, গড় ৩৯.৯২৫ এবং স্ট্রাইকরেট ৭১.৫১৫-এ।

এই ভারতীয় দলের সব থেকে অভিজ্ঞ সদস্য এমএস ধোনি। এটা তাঁর চতুর্ত বিশ্বকাপ। তাঁর অধিনায়কত্বেই ২০১১ সালে বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত।

কেদার যাদব

শেষ দুটো মরসুম কেদার যাদবের ভালই গিয়েছে। ২০১৭-১৮তে তিনি৩৩০ রান করেছিলেন, স্ট্রাইকরেট ৯৬.৫৫৫, গড় ২৮.১৭। গত মরসুম থেকে এই মরসুমে অনেকটাই উন্নতি করেছেন তিনি। ৩৭৬ রান, গড় ৬০.৫ ও স্ট্রাইকরেট৮৯.৬৯৫ নিয়ে ঢুকে পড়েছেন বিশ্বকাপ দলে।

এটাই কদার যাদবের প্রথম বিশ্বকাপ।

দীনেশ কার্তিক

কার্তিককে বিশ্বকাপ দলে নেওয়া নিয়ে অল্প হলেও বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। অনেকেই চেয়েছিলেন ঋষভ পন্থকে। তবে তাঁর১৫ বছরের দীর্ঘ কেরিয়ারই তাঁকে জায়গা করে দিয়েছে দলে। সম্প্রতি ভাল ফর্মেও রয়েছেন। ২০১৭-১৮তে গড় ৫৮.৭৫ ও স্ট্রাইকরেট ৭০.৯০৫ থেকে এ বার তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৬.১২তে।

দীর্ঘ ১৫ বছরের কেরিয়ার হলেও দীনেশ কার্তিকের এটাই প্রথম বিশ্বকাপ।

যুজবেন্দ্র চাহাল

২০১৬তে জিম্বাবোয়ের বিরুদ্ধে অভিষেক হয়েছিল চাহালের। সাফল্যের শুরু সেই থেকেই। ধরে রেখেছেন ধারাবাহিকতাও। ৪১টিওডিআইয়ে তিনি নিয়েছেন ৭২ উইকেট। ইকনমি রেট ৪.৮৯য় সেরা বোলিং অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে গত বছর জানুয়ারিতে ৬-৪২।

যুজবেন্দ্র চাহালের এটা প্রথম বিশ্বকাপ।

কুলদীপ যাদব

২০১৭তে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে অভিষেক হওয়ার পর থেকেই তিনি নজর কেড়েছেন। এবং ধরে রেখেছন সাফল্য। চায়নাম্যান বোলারের দখলে রয়েছে ৪৪ ম্যাচে ৮৭ উইকেট। ইকনমি রেট ৪.৯৩। সেরা স্পেল ৬-২৫ ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২০১৮-র ১২ জুলাই। যেখানে ভারত ন‘ওভার বাকি থাকতে আট উইকেটে ম্যাচ জিতে নিয়েছিল।

কুলদীপ যাদবের এটা প্রথম বিশ্বকাপ।

ভুবনেশ্বর কুমার

ভুবনেশ্বরও গত দু'বছর ধরে নিজের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছন। গত মরসুমে তিনি ২৯টি উইকেট নিয়েছিলেন। যার ইকনমি রেট ছিল ৫.০১, ব্যাক্তিগত সেরা ২০১৭-র সেপ্টেম্বরে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ৫-৪২। ২০১৮-১৯-এও সেই একই গতিতে চলছেন তিনি। ৪.৯৭ ইকনমি রেট নিয়ে তাঁর উইকেট ২৮।

২০১৫ বিশ্বকাপে একটি ম্যাচ খেলারই সুযোগ হয়েছিল ভুবনেশ্বর কুমারের সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর বিরুদ্ধে।

হার্দিক পাণ্ড্যে

গত কয়েক বছরে ভারতের সেরা অল-রাউন্ডার হয়ে উঠেছেন হার্দিক। হয়ে উঠেছেন ভারতীয় দলের জন্য অপরিহার্য। তাঁর ব্যাট থেকে রান এসেছে ৭৩১। স্ট্রাইক রেট ১১৬.৫৮, গড় ২৯.২৪। এর সঙ্গে রয়েছে ৪৪টি উইকেট, উকনমি রেট ৫.৫৩।

হার্দিক পাণ্ড্যে প্রথম বিশ্বকাপ খেলতে নামবেন।

রবীন্দ্র জাডেজা

ব্যাট হাতে জাডেজা সব সময়ই ভরসা দিয়ে এসেছেন। সম্প্রতি বল হাতেও তিনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছেন। শেষ ২৫টি ম্যাচে তিনি ২৭টি উইকেট নিয়েছেন। ইকনমি রেট ৪.৯১। সেরা বোলিং ২০১৮-র সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ৪-২৯।

২০১৫ বিশ্বকাপে দলে ছিলেন জাডেজা। আট ম্যাচে নিয়েছিলেন নয় উইকেট। ইকনমি রেট৫.৩৫।

মহম্মদ শামি

দেশের সেরা সিম বোলারদের মধ্যে এখন তিনিও একজন। ২০১৭টা প্রায় খেলতেই পারেননি। কিন্তু ২০১৮-১৯-এ ফিরেই নিজেকে প্রমান করেছেন নতুন করে। ১৩ ম্যাচে ২২টি উইকেট নিয়েছেন মহম্মদ শামি, ইকনমি রেট ৫.৪৫।

২০১৫ বিশ্বকাপটাও ভালই গিয়েছিল শামির। সাত ম্যাচে ১৭ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। ইকনমি রেট ছিল ৪.৮১। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ৪-৩৫ তাঁর সেরা বোলিং।

যশপ্রীত বুমরা

বুমরার উপর এই বিশ্বকাপে অনেকটাই দায়িত্ব থাকবে ভারতীয় দলের বোলিংয়ের।২০১৬-র জানুয়ারিতে ভারতীয় দলের হয়ে অভিষেক হওয়ার পর থেকে তিনি ৪৯ ম্যাচে ৮৫টি উইকেট নেন। যার ইকনমিরেট ৪।৫১। ২০১৭তে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ৫-২৭ তাঁর ব্যাক্তিগত সেরা বোলিং।

যশপ্রীত বুমরার প্রথম বিশ্বকাপ এটি।

Comments
হাইলাইট
  • বিশ্বকাপ ট্রফি ঘরেএ তুলতে মুখিয়ে রয়েছেন বিরাট কোহলি
  • এর আগে দু’বার বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত
  • গত দু’বছর ধরে কোহলি দারুন ছন্দে রয়েছেন
সম্পর্কিত খবর
আইসিসির ২০১৯ বিশ্বকাপ দলে জায়গা হল না বিরাট কোহলির
আইসিসির ২০১৯ বিশ্বকাপ দলে জায়গা হল না বিরাট কোহলির
ওয়েস্ট ইন্ডিজে কি যাচ্ছেন ধোনি? দল ঘোষণার আগেও অস্পষ্ট মাহির ভবিষ্যৎ
ওয়েস্ট ইন্ডিজে কি যাচ্ছেন ধোনি? দল ঘোষণার আগেও অস্পষ্ট মাহির ভবিষ্যৎ
বিরাটের হাত থেকে কি যেতে চলেছে সীমিত ওভারের অধিনায়কত্ব?
বিরাটের হাত থেকে কি যেতে চলেছে সীমিত ওভারের অধিনায়কত্ব?
বিতর্কের মাঝে এবি ডিভিলিয়ার্সের পাশে দাঁড়ালেন বিরাট কোহলি, যুবরাজ সিংহ
বিতর্কের মাঝে এবি ডিভিলিয়ার্সের পাশে দাঁড়ালেন বিরাট কোহলি, যুবরাজ সিংহ
ইংল্যান্ড থেকে ফিরে সিওএ-র সঙ্গে দেখা করবেন বিরাট কোহলি ও রবি শাস্ত্রী
ইংল্যান্ড থেকে ফিরে সিওএ-র সঙ্গে দেখা করবেন বিরাট কোহলি ও রবি শাস্ত্রী
Advertisement