দিল্লি সরকার সাহায্য করলে ব্রোঞ্জ নয়, সোনা জিততাম: দিব্যা

Updated: 06 September 2018 22:25 IST

দিল্লি সরকারের বিরুদ্ধেে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন দিব্যা

Asian Games medallist Divya Kakran slams state government for not extending support
এশিয়াডে দারুণ খেলেন দিব্যা © এএফপি

সম্প্রতি জাকার্তায় এশিয়ান গেমসে কুস্তিতে ব্রোঞ্জ জেতেন দিব্যা কাকরান।  চরম দারিদ্রতাকে পিছনে ফেলে দিব্যা এশিয়াডে পদক জেতেন তা রূপকথার চেয়ে কম কিছু নয়। রীতিমত টাকা ধার করে জাতীয় গেমসে নেমেছিলেন দিব্যা। জিততে না পারলে পথে বসতে হয়। সেই জেদকে সম্বল করেই দিব্যা এত দূর এসেছেন। তবে তাঁর আফশোস দিল্লি সরকার সাহায্য করলে তিনি জাকার্তা থেকে ব্রোঞ্জ নয়, সোনা জিতে ফিরতেন। দিল্লি সরকারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসে সবাইকে চমকে দিয়ে দিব্যা বলতে থাকেন, ''এশিয়ান গেমসের আগে যখন আমি প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম তখন আমি দিল্লি সরকারের কাছে সাহায্য চেয়েছিলাম, তখন আমায় কেউ সাহায্য করেনি। আমি লিখিতভাবে সাহায্যের আবেদন করেছিলাম, ফোন করছিলাম। কিন্তু না, তখন কেউ সাহায্য করেনি। তবে হ্যাঁ পদক জেতার পর আমায় সংবর্ধনা দেওয়া হচ্ছে এটাতে ভালো লাগছে।''পাশাপাশি দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে গরীব শিশুদের জন্য আরো কাজ করার আবেদন করেন দিব্যা। জাকার্তা এশিয়াডে 68 কেজি ফ্রি স্টাইলে ব্রোঞ্জ জয়ী দিব্যা বলেন, ''আমি গরীবি দেখে বড় হয়েছি। তাই জানি, বুঝতে পারি কষ্টটা। খিদেতে রাত কাটানোর মত বেদনা কোনও কিছুর নেই। আমার মধ্য কুস্তির তাড়নাটা ছিল। তাই আমি এই জায়গায় আসতে পেরেছি। দিল্লি সরকারকে আবেদন করব, গরীব শিশুদের জন্য কিছু করার।'' তাঁর জীবনের সবচেয়ে বড় প্রতিপক্ষ গরীবিকেই বলছেেন দিব্যা। দিল্লির এক সরু গলির মধ্যে মধ্যে103 ইস্ট গোকালপুরের বাড়িতে নিজের পরিবারের সঙ্গে থাকেন দিব্যা কাকরান। দঙ্গল লড়ে পুরস্কার জিতেই এক সময় তার খরচ চালাতেন বলে জানান দিব্যা। 

বারবার তাঁর কেরিয়ারে নানা প্রতিবন্ধকতা এসেছে, কিন্তু প্রতিবার তা কুস্তির প্যাঁচে ধরাশায়ী করে সাফল্য পেয়েছেন দিব্যা। চলতি বছর দেশের এক নামকরা টুর্নামেন্টেকুস্তিগীর গীতা ফোগতকেও পরাস্ত করে সোনা জিতেছিলেেন দিব্যা। 

মাত্র পাঁচ বছর বয়স থেকেই ভাইয়ের সঙ্গে কুস্তির আখড়া যেতে শুরু করেন দিব্যা। মেয়েদের সঙ্গে নয় ছেলেদের সঙ্গে প্র্যাকটিশ করতেন। দিন যত গিয়েছে দিব্যা তত সাফল্য পেয়েছেন। জাতীয় গেমসে অংশগ্রহণ করার জন্য দিব্যার এক লক্ষ টাকার প্রয়োজন ছিল। অত টাকা দেওয়ার সামর্থ্য পরিবারের ছিল না। দিব্যার মা  নিজের মঙ্গলসূত্র-সহ অন্য গয়নাও বন্ধক দিয়ে খেলতে নেমেছিলেন। পরে টুর্নামেন্ট জিতে মায়ের সেই গয়না ছাডা়ন দিব্যা। দিব্যার উত্থান কাহিনিটা যে কোনও চিত্রনাট্যকে হারা মানানোর মত।

Comments
হাইলাইট
  • 68 কেজি ফ্রিস্টাইল কুস্তিতে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন দিব্যা
  • দিল্লি সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দেন দিব্যা
  • দিব্যা বলেন, আগেে তিনি বহুবার সাহায্যের আবেদন করেে পপাননি
সম্পর্কিত খবর
Khelo India Youth Games:  মহারাষ্ট্রের ঝুলিতে ২০০-র বেশি পদক,
Khelo India Youth Games: মহারাষ্ট্রের ঝুলিতে ২০০-র বেশি পদক, 'সোনার মেয়ে' বাংলার সৌবৃতি
অলিম্পিক ও বিশ্বকাপ থেকে নির্বাসিত রাশিয়া, নির্বাসন চার বছরের
অলিম্পিক ও বিশ্বকাপ থেকে নির্বাসিত রাশিয়া, নির্বাসন চার বছরের
ভাইচুং ভুটিয়া, গগন নারাংদের নিয়ে ১৩ জনের কমিটি স্পোর্টস কোড রিভিউ করবে
ভাইচুং ভুটিয়া, গগন নারাংদের নিয়ে ১৩ জনের কমিটি স্পোর্টস কোড রিভিউ করবে
Tokyo Paralympics: সন্দীপ চৌধরী ও সুমিত আন্তিল অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন করলেন
Tokyo Paralympics: সন্দীপ চৌধরী ও সুমিত আন্তিল অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন করলেন
লোগো নাকি রাগী মেয়ের মুখ? ২০২৪ প্যারিস অলিম্পিকের লোগো নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে
লোগো নাকি রাগী মেয়ের মুখ? ২০২৪ প্যারিস অলিম্পিকের লোগো নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে
Advertisement