সোসাইরাজের জোড়া গোলে ঘরের মাঠে গোয়াকে উড়িয়ে দিল জামশেদপুর এফসি

Updated: 02 November 2018 14:56 IST

গোয়ার বিরুদ্ধে বড় ব্যাধানে জিতে ছয় ম্যাচ খেলে লিগ টেবলের তিন নম্বরে উঠে এল জামশেদপুর এফসি।

ISL: Jamshedpur FC beat Goa FC by 4-1, Sosairaj scored double
দুই অর্ধে দুটো গোল করলেন সোসাইরাজ © ইন্ডিয়ান সুপার লিগ

এই জামশেদপুরের টাটা ফুটবল অ্যাকাডেমি থেকেই উঠে আসা ফুটবলাররা এক সময় ভারতীয় ফুটবলকে পরিচালনা করত। সেটা চলেছে গত কয়েক বছর আগে পর্যন্তও। এখনও আরও অন্যান্য অ্যাকাডেমির সংখ্যা বেড়েছে দেশ জুড়ে। সেখান থেকেও তৈরি হচ্ছে ফুটবলার। তার মধ্যেই অ্যাকাডেমি ছেড়ে ফুটবলের মূল স্রোতে গত বছর থেকে ঢুকে পড়েছে জামশেদপুর টাটা ফুটবল অ্যাকাডেমি। খেলছে ইন্ডিয়ান সুপার লিগে। তৈরি করছে দেশি-বিদেশি, প্রাক্তন ছাত্র থেকে বর্তমান ফুটবলারদের নিয়ে দারুণ। দল তারই প্রমাণ পাওয়া গেল বৃহস্পতিবারের ম্যাচে। গোয়াকে ১-৪ গোলে হারিয়ে জয় ছিনিয়ে নিল জামশেদপুর এফসি।

জেআরডি টাটা স্পোর্টস কমপ্লেক্সে বৃহস্পতিবার জোড়া গোল  করলেন মাইকেল সোসাইরাজ। দুই অর্ধে তাঁর দুই গোল দলকে ভরসা তো দিলই সঙ্গে একটি করে গোল করলেন মেমো ও সুমিত পাসি। জামশেদপুরের কাছে এ বার প্রথম হারের মুখ দেখল গোয়া। অন্যদিকে যানা চার ম্যাচে ড্রয়ের অভিশাপ থেকে বেরিয়ে এল জামশেদপুর।

কেরালা ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে ২-২ গোলে ড্র করা হলে মোট পাঁচটি পরিবর্তন করেছিলেন জামশেদপুর কোচসিজার ফার্নান্দো। এই ম্যাচে প্রথম থেকেই আক্রমণাত্মক ছিল জামশেদপুরের ফুটবল। ম্যাচ শুরুর দু'মিনিটের মধ্যেই নিশ্চিত গোল বাঁচান মহম্মদ নওয়াজ। তার এক মিনিটের মধ্যেই নিজের আগের সেভকেই ছাপিয়ে যান তিনি।

১৭ মিনিটে গোলের মুখ খুলে ফেলেন সোসাইরাজ। সিডোনচার কর্নার গোয়া রক্ষণ ক্লিয়ার করতে না পারায় সেই বল পেয়ে যান সোসাইরাজ। তিনি ঠান্ডা মাথায় গোয়ার গোলে সেই বল জমা করে দেন। এগিয়ে যায় জামশেদপুর।

২৬ মিনিট পর্যন্ত জামশেদপুরকে কোনও চাপই দিতে পারেনি গোয়া। হুগোর শট পোস্টে লাগার পর জামশেদপুর রক্ষণকে ভাবতে হয়। তার কয়েক মিনিটের মধ্যেই জমতায় ফেরে গোয়া। খেলার গতির বিপক্ষে গিয়েই হুগোর ফ্রি-কিক থেকে এডু বেদিয়ার ফ্লিক চলে জায় জামশেদপুর গোলে।

প্রথমার্ধ শেষ হয়েছিল ১-১ গোলেই। তবে আরও একটা ড্র-এর হাত থেকে দ্বিতীয়ার্ধের ৪ মিনিটে জামশেদপুরকে মুক্তি দেন সেই সোসাইরাজ। সুযোগ কাজে লাগাতে কোনও ভুল করেননি তিনি। এর মধ্যেই লেনি রডরিগেজের ব্যাকপাস ধরে আবার গোল করেই ফেলেছিল জামশেদপুর। কিন্তু শেষ মুহূর্তে তা বাঁচিয়ে দেন তিরি।

শেষ কাজটি করে যান সুমিত পাসি। তার আগে ৭৭ মিনিটে গোয়া রক্ষণ কর্নার পুরোপুরি ক্লিয়ার করতে না পারায় বক্সের বাইরে সেই বল পেয়ে যান মেমো। সেখান থেকেই গোলে শট নেন তিনি। এক মিনিটের মধেই আবারও গোল। এ বার সুমিত পাসি। তাঁর জন্যই ফাঁকাই ছিল গোয়ার গোল মুখ।

Comments
হাইলাইট
  • ছয় ম্যাচ শেষে জামশেদপুর উঠে এল তিন নম্বরে
  • মিডফিল্ডার মাইকেল সোসাইরাজ দুই অর্ধে দুটো গোল করেন
  • সুমিত পাসির শেষ গোলে গোয়াকে প্রথম হারের মুখ দেখতে হল
সম্পর্কিত খবর
আইএসএল ও আই লিগের দল খেলবে এবারের ডুরান্ড কাপে
আইএসএল ও আই লিগের দল খেলবে এবারের ডুরান্ড কাপে
অস্ট্রেলিয়ায় বিরাটের দেখা হয়ে গেল টিম কাহিলের সঙ্গে
অস্ট্রেলিয়ায় বিরাটের দেখা হয়ে গেল টিম কাহিলের সঙ্গে
সোসাইরাজের জোড়া গোলে ঘরের মাঠে গোয়াকে উড়িয়ে দিল জামশেদপুর এফসি
সোসাইরাজের জোড়া গোলে ঘরের মাঠে গোয়াকে উড়িয়ে দিল জামশেদপুর এফসি
Advertisement