গুহা থেকে উদ্ধার পাওয়া খুদে থাই ফুটবলাররা ফাইনালে যাচ্ছেন না যে কারণে

Updated: 10 July 2018 23:11 IST

দীর্ঘ সময় গুহায় আটকে থাকায় তারা বাদুর ও ইঁদুরের কারণে কোনো সংক্রামক রোগে আক্রান্ত হয়েছে কি না, সেটাও নিশ্চিত হতে চাইছেন চিকিৎসকরা।

FIFA World Cup 2018: This Is Why Rescued Thai Boys Won
জীবনের জয়গান © টুইটার

একেবারে নাটকীয় কায়দায় থাইল্যান্ডের থাম লুয়াং গুহা থেকে উদ্ধার করা 12জন কিশোর ফুটবলার ও তাদের কোচকে বিশ্বকাপ ফাইনালে দেখতে যাওয়ার অনুমতি দিলেন না চিকিৎসকরা। ফিফা সভাপতি জিয়ানো ইনফান্তিনো সুস্থ হয়ে গুহা থেকে ফিরলে থাইল্যান্ডের ওই খুদে ফুটবলারদের আগামী 15 জুলাই বিশ্বকাপ ফাইনালে দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। কিন্তু বেশ কয়েকদিন গুহা থাকার ফলে খুদে-কিশোর ফুটবলাররা শারীরিক দিক থেকে খুবই দুর্বল অবস্থায় আছে। পাশাপাশি দীর্ঘ সময় গুহায় আটকে থাকায় তারা বাদুর ও ইঁদুরের কারণে কোনো সংক্রামক রোগে আক্রান্ত হয়েছে কি না, সেটাও নিশ্চিত হতে চাইছেন চিকিৎসকরা। আর তাই কোনও ঝুঁকি না নিয়ে রাশিয়ায় যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না তাদের। 

ফিফার পক্ষ থেকেও জানিয়ে দেওয়া হয় আমন্ত্রণ জানানো হলেও গুহা থেকে উদ্ধার পাওয়া ওই কিশোরদের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই তারা মস্কোয় ফাইনাল ম্যাচ দেখতে আসতে পারছে না। পাশাপাশি তারা সুস্থ হলে ফিফার অন্য কোনও ইভেন্টে নিশ্চয়ই আমন্ত্রণ জানানো হবে। 
ওই ফুটবলারদের জন্য ফাইনাল ম্যাচের আসন বরাদ্দ রেখেছিল ফিফা। ওই 13 জন ফুটবলার ও কোচকে এখন হাসপাতালে মেডিক্যাল টিমের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত 23 জুন থাইল্যান্ডে 13 জনের এই দলটি গুহা অভিযান শুরু করে। তবে আচমকা হড়পা বানে গুহার ভিতর জল ভরে যেতে শুরু করে। বারো জন থাই কিশোর এবং তাদের কোচকে উদ্ধারের কাজ সোমবার শুরু হয়। থম থেকেই থাই প্রশাসন মরিয়া ভাবে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে। তবে প্রযুক্তি থেকে শুরু করে অন্য্ সাহায্য প্রয়োজন হওয়ায় হাত বাড়িয়ে দেয় ইংল্যান্ড থেকে শুরু করে অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশ।  জুন মাসের 23 তারিখ থেকে আটকে পড়া পড়ুয়া ও প্ৰশিক্ষককে বাইরে বের করে আনতে বিভিন্ন রকমের পরিকল্পনা নেওয়া হয়।  কয়েকদিন আগে প্রথম দফায় কয়েকজনকে বের করে আনা হয়। তারপর রবিবার নাগাদ তদন্তকারী দলের সদস্যরা বুঝতে পারেন এটাই সেরা সময়।  আবহাওয়া খারাপ হয়ে  গেলে ফের ব্যাহত হবে উদ্ধারের কাজ।  তাই রাত দিন এক করে শুরু  হয় উদ্ধার কাজ।  গুহায় প্রচুর পরিমাণে জল ছিল।  সেটা অতিক্রম করে সকলক বাইরে নিয়ে আসা মতে সহজ ছিল না।  তার উপর আটকে পড়া পড়ুয়াদের বেশিরভাগেরই বয়স খুব কম।  তারা সাঁতারেও তত পটু নয়।  এরকম নান প্রতিবন্ধকতা পার হয়ে এগিয়েছে উদ্ধারের কাজ। 

প্রথম থেকেই গোটা পৃথিবী উদ্ধার কাজের দিকে নজর রেখেছিল।  ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকেরবার্গ থেকে শুরু করে  অনেকেই গোটা প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িয়ে ছিলেন। শেষমেশ সকলের প্রার্থনা কাজে এলো।  গুহা থেকে বের করা সম্ভব হলে সবাইকে। উদ্ধার করেই হেলিকপ্টারে চাপিয়ে নিয়ে যাওয়া হল হাসপাতালে। সেখানেই  শিশু ও তাদের প্রশিক্ষকের চিকিৎসা চলছে।       



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)
Comments
হাইলাইট
  • উদ্ধার পেল গুহায় আটক সেই 13 জন
  • ফিফা জানিয়ে দিল তারা ফাইনালে দেখতে আসতে পারবে না
  • কোনও ঝুঁকি না নিয়ে রাশিয়ায় যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হল না
সম্পর্কিত খবর
মেসিদের মাথায় হাত ফেলে দেওয়া এই গোলটাই পেল বিশ্বকাপে সেরার পুরস্কার
মেসিদের মাথায় হাত ফেলে দেওয়া এই গোলটাই পেল বিশ্বকাপে সেরার পুরস্কার
বিস্ফোরক অভিযোগ তুলে জার্মানির হয়ে আর খেলবেন না বিশ্বজয়ী ওজিল
বিস্ফোরক অভিযোগ তুলে জার্মানির হয়ে আর খেলবেন না বিশ্বজয়ী ওজিল
বিশ্বকাপে ঠিক যে মুহূতটা টুইটারে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হয়
বিশ্বকাপে ঠিক যে মুহূতটা টুইটারে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হয়
যে কারণে ব্যাপক ক্ষতি হল রাশিয়া বিশ্বকাপের 1750 কোটি টাকার স্টেডিয়ামের
যে কারণে ব্যাপক ক্ষতি হল রাশিয়া বিশ্বকাপের 1750 কোটি টাকার স্টেডিয়ামের
কাপ জয়ের পর ড্রেসিংরুমে ফরাসিদের উচ্ছ্বাসের মন ভাল করা মুহূর্তগুলো
কাপ জয়ের পর ড্রেসিংরুমে ফরাসিদের উচ্ছ্বাসের মন ভাল করা মুহূর্তগুলো
Advertisement