লন্ডনে গ্র্যাজুয়েট হওয়ার পর সারাকে আবেগতাড়িত হয়ে বাবা সচিন যা বললেন

Updated: 07 September 2018 22:39 IST

মনে হচ্ছে এই তো ক দিন আগে তুমি বাড়ি থেকে বেরিয়ে লন্ডনে (ইউসিলি-এ) পড়তে গেলে আর এখন তুমি গ্র্যাজুয়েট।

This Is What Sachin Tendulkars Message For Daughter Sara
সারার সঙ্গে সচিনের স্মরণীয় মহূর্ত © টুইটার

মেয়ের জীবনের স্মরণীয় দিনে আবেগতাড়িত সচিন তেন্ডুলকর। লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েট হন  সারা তেন্ডুলকর। গ্র্যাজুয়েট পাশের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বাবা-মায়েকে নিয়ে ছবি তোলেন সারা। তাঁর মাথায় ছিল সেই চেনা পরিচিত গ্র্যাজুয়েট হওয়ার স্বীকৃতিদানকারী টুপি। 20 বছরের সারার জীবনের স্মরণীয় এই মুহূর্ত আজ তিনি পোস্ট করেন ইনস্টাগ্রামে। এরপর সচিন নিজের টুইটারে সেই ছবি পোস্ট করে সারাকে আবেগতাড়িত বার্তা পাঠান। টুইটারে সচিন লেখেন, '' মনে হচ্ছে এই তো ক দিন আগে তুমি বাড়ি থেকে বেরিয়ে লন্ডনে (ইউসিলি-এ) পড়তে গেলে আর এখন তুমি গ্র্যাজুয়েট। তোমার মা আর আর আমি দুজনেই তোমার জন্য গর্বিত। যাও গোটা দুনিয়াকে দখল করে এসো।''মেয়েকে নিয়ে সচিনের করা এই টুইট মহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়।    

লন্ডনের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকের ডিগ্রি প্রাপ্ত করলেন সচিন তেন্ডুলকরের মেয়ে সারা। লন্ডনের ইউনিভার্সিটি অফ কলেজের এক অনুষ্ঠানে 20 বছরের সারা মেডিসন নিয়ে গ্র্যাজুয়েট হলেন। আর সেই  গ্রাজুয়েশনের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মেয়ের সাফল্য ভাগ করে নিলেন গর্বিত বাবা-মা সচিন-সারা। সচিনের মেয়ে সারা তাঁর সেই গ্র্যাজুয়েশন সেরিমনির ছবি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করলেন। ক্যাপশনে লিখলেন, সত্য়ি আমি করে ফেললাম? সারাকে  গ্রাজুয়েশনের সার্টিফিকেট ও পুরস্কার তুলে দেওয়ার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সস্ত্রীক সচিন তেন্ডুলকর। 2013 সালে মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়েতে ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার সময় আক্ষেপ করে সচিন বলেছিলেন, তিনি সারা-অর্জুনকে ঠিক মত সময় দিতে পারেননি। এবার বাকি জীবনটা ওদের সময় দিতে চান। ভাররত্ন ক্রিকেটার অবসর জীবনে ঠিক সেই কাজটা করছেন। হাজারো ব্যস্ততার মাঝে পরিবারকে সময় দেন। বাবা-মায়ের সঙ্গে সারার সেই গ্র্যাজুয়েশন পাশের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের ছবিতে পোস্ট করার ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই দশ হাজার লাইক পড়ে যায়। সেই লাইকের সংখ্য়াটা এরপর এক লক্ষ হতে বেশি সময় নেয়নি। লন্ডনে পড়তে যাওয়ার আগে সারা ধীরভাই আম্বানি আন্তর্জাতিক স্কুলে পড়াশোনা করেন। প্রসঙ্গত, সারার মা অঞ্জলীও পেশায় ডাক্তার।

 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

I did what?

A post shared by Sara Tendulkar (@saratendulkar) on

বাবা-মায়ের সঙ্গে সারার সেই গ্র্যাজুয়েশন পাশের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের ছবিতে পোস্ট করার ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই দশ হাজার লাইক পড়ে যায়। সেই লাইকের সংখ্য়াটা এরপর এক লক্ষ হতে বেশি সময় নেয়নি। লন্ডনে পড়তে যাওয়ার আগে সারা ধীরভাই আম্বানি আন্তর্জাতিক স্কুলে পড়াশোনা করেন। প্রসঙ্গত, সারার মা অঞ্জলীও পেশায় ডাক্তার।

পাঁচ বছর আগে মুম্বইয়ে সচিনের অবসর নেওয়ার ম্যাচের শেষদিনে সারাকে টিভিতে দেখানোর পর থেকেই তাঁকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় আগ্রহ তৈরি হয়। দেখতে দেখতে ইনস্টাগ্রামে সারা-র এক লক্ষ ফলোয়ার ছাপিয়ে গিয়েছে। সারা সিনেমায় নামছেন এমন জল্পনাও বারবার শোনা গিয়েছে। যদিও সচিন বহুবার মিডিয়ার কাছে আবেদন করেছেন, পড়াশোনায় ব্যস্ত সারাকে যেন নিজের মত থাকতে দেওয়া হয়। তবে ইন্টারনেট দুনিয়ায় স্টার কিড-দের নিয়ে আগ্রহ বারবার দেখা গিয়েছে। তার ওপর সারা হলেন ভারতের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রীড়াবিদের মেয়ে তাই মিডিয়া তাঁর থেকে দূরে থাকতে পারে না। ঠিক যেমনটা হয় অর্জুন তেন্ডুলকরকে নিয়ে। অর্জুনের যাবতীয় কিছু মিডিয়ায় খবর হয়। ইতিমধ্যেই দেশের হয়ে অনুর্ধ্ব 19 দলে অভিষেক হয়ে গিয়েছে অর্জুন।      

Comments
হাইলাইট
  • সারা-র গ্র্যাজুয়েশন সেরেমনিতে এক ফ্রেমে মেয়ের সঙ্গে সচিন-অঞ্জলী
  • লন্ডনের ইউনিভার্সিটি অফ কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েট হলেন সারা
  • সচিন সারাকে উদ্দেশ্য করে টুইটারে আমি আর তোমার মা খুব গর্বিত
সম্পর্কিত খবর
গত ২০ বছরে ক্রীড়াক্ষেত্রে সেরা মুহূর্তের জন্য লরিয়াস পুরস্কার পেলেন সচিন তেন্ডুল‌কর
গত ২০ বছরে ক্রীড়াক্ষেত্রে সেরা মুহূর্তের জন্য লরিয়াস পুরস্কার পেলেন সচিন তেন্ডুল‌কর
Sourav Ganguly –কে কী বলে ট্রোল করলেন যুবরাজ সিং
Sourav Ganguly –কে কী বলে ট্রোল করলেন যুবরাজ সিং
“শহরে নতুন রাপার”, চ্যালেঞ্জের উত্তরে বিনোদ কাম্বলির পারফর্মে খুশি সচিন তেন্ডুলকরের
“শহরে নতুন রাপার”, চ্যালেঞ্জের উত্তরে বিনোদ কাম্বলির পারফর্মে খুশি সচিন তেন্ডুলকরের
সচিন তেন্ডুলকরের প্রশংসা পেয়ে আপ্লুত Marnus Labuschagne
সচিন তেন্ডুলকরের প্রশংসা পেয়ে আপ্লুত Marnus Labuschagne
U-19 World Cup Final: বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নামার আগে ভারতীয় দলকে শুভেচ্ছাবার্তা শচিনের
U-19 World Cup Final: বাংলাদেশের বিরুদ্ধে নামার আগে ভারতীয় দলকে শুভেচ্ছাবার্তা শচিনের
Advertisement