দোষ মেনে না নিলে পরিবারের সদস্যদের অত্যাচার করার হুমকি দিয়েছিল দিল্লি পুলিশ: শ্রীসন্থ

Updated: 31 January 2019 11:25 IST

বুধবার শ্রীসন্থ সুপ্রিম কোর্টে জানান দিল্লি পুলিশ তাঁকে ভয় দেখিয়েছিল দোষ স্বীকার করে না নিলে তাঁর পরিবারের লোক জনের উপর অত্যাচার করা হবে।

‘Delhi Police had threatened Sreesanth that his family members would be tortured’
২০১৩ সালে স্পটফিক্সিং কাণ্ডে গ্রেফতার হয়েছিলেন শ্রীসন্থ © ফাইল চিত্র/এএফপি

স্পট ফিক্সিং মামলায় নির্বাসি শ্রীসন্থ সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হলেন। ২০১৩ সালে আইপিএল স্পট ফিক্সিং কাণ্ডে গ্রেফতার হন তিনি। তার পর নিজের দোষ মেনেও নেন। নির্বাসিত হতে হয় তাঁকে। আজও তিনি নির্বাসিত। কিন্তু বুধবার তিনি সুপ্রিম কোর্টে জানান দিল্লি পুলিশ তাঁকে বাধ্য করেছিল দোষ মেনে নিত। কারণ তারা ভয় দেখিয়েছিল শ্রীসন্থ স্বীকার করে না নিলে তাঁর পরিবারের লোক জনের উপর অত্যাচার করা হবে। যদিও আদালতের তরফে জানতে চাওয়া হয় সেই সময় তিনি কেন পুরো বিষয়টি বিসিসিআই-এর নজরে আনেননি। যদিও অ্যাপেক্স কোর্ট মনে করে আজীবন নির্বসন শ্রীসন্থের জন্য ঠিক নয়।

শ্রীসন্থের হয়ে আদালতে সওয়াল করতে গিয়েছিলেন সলমন খুরশিদ। কেরালা হাইকোর্টের নির্বাসন রেখে দেওয়ার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আবেদন জানিয়েছেন শ্রীসন্থ। সেখানে শ্রীসন্থ বলেন, ‘‘পুলিশ আমাকে ভয় দেখায় আমার পরিবারের সদস্যদের উপর অত্যাচার করা হবে যদি না আমি মেনে নিই।''

বিরাট কোহলির বিশ্রামে ভারতীয় দলের ভাগ্য খুলতে পারে শুবমান গিলের

খুরশিদ বলেন, ‘‘২০১৩ সালে মোহালিতে পঞ্জাব ও রাজস্থানে মধ্যে ম্যাচে যে স্পট ফিক্সিং হয়েছিল তার কোনও প্রমাণ নেই। এও প্রমাণিত নয় যে সেখান থেকে এই ক্রিকেটার কোনও টাকা পেয়েছিল। এ পর বেঞ্চের তরফে খুরশিদের কাছে জানতে চাওয়া হয়, সেই সময় কেন বিসিসিআইকে এ ঘটনার কথা জানাননি শ্রীসন্থ।

ভারতের বিরুদ্ধে টি২০ সিরিজের দল ঘোষণা করে দিল নিউজিল্যান্ড

খুরশিদ বলেন, অভিযোগ অনুযায়ী শ্রীসন্থকে ১৪ রান হজম করতে হত এক ওভারে কিন্তু ও ১ রান হজম করছিল। তিনি বল করছিলেন অ্যাডাম গিলক্রিস্ট আর শন মার্শের মতো সেরা ব্যাটসম্যানদের। এটা যদি হয় শ্রীসন্থ এটা জানতেন যে কেউ গড়াপেটা করার চেষ্টা করছে এবং তাঁর সেটা বিসিসিআইকে জানানো উচিৎ ছিল কিন্তু তিনি জানাননি। এই অবস্থায় খুব বেশি হতে পাঁচ বছরের জন্য নির্বাসিত হতে পারেন। বিশ্ব ক্রিকেটে দক্ষিণ আফ্রিকার হ্যান্সি ক্রনিয়ে ছাড়া গড়াপেটা কাণ্ডে কাউকে আজীবন নিবার্সন করেনি। যিনি ২০০২ সালে বিমান দূর্ঘটনায় মারা যান।

মহম্মদ আজহারউদ্দিনের উদাহরণ দিয়ে খুরশিদ বলেন, ২০০২ সালে তাঁকেও গড়াপেটার জন্য আজীবন নির্বাসন দেওয়া হলেও পরে তা তুলে নেওয়া হয়।

খুরশিদ আদালতকে জানান, শ্রীসন্থ তাঁর সম্মান ফিরে পেতে চান। তিনি তাঁপ পেশাদার কেরিয়ার নষ্ট করছেন। তাঁকে অন্তত বিদেশে খেলতে দেওয়া হোক।বাইরে থেকে প্রতিবছর খেলার আবেদন আসছে। শ্রীসন্থের মতে, তাঁকে এমন অপরাধের জন্য শাস্তি দেওয়া হচ্ছে যা প্রমাণিতই নয়। যে রেকর্ড করা ফোনের উপর ভিত্তি করে এই শাস্তি তাতে কোথাও প্রমাণ হয়নি যে ম্যাচে গড়াপেটা হয়েছে। ২০ ফেব্রুয়ারি আবার এই আবেদনের শুনানি হবে।

Comments
হাইলাইট
  • ২০১৩ সালে স্পট-ফিক্সিং কাণ্জে গ্রেফতার হয়েছিলেন শ্রীসন্থ
  • শ্রীসন্থের হয়ে আদালতে সওয়াল করলেন সলমন খুরশিদ
  • শ্রীসন্থের মতে, তাঁর সঙ্গে বেশি কঠিন ব্যবহার করা হয়েছে
সম্পর্কিত খবর
এস শ্রীসন্থের অভিযোগকে ব্যঙ্গ করলেন Dinesh Karthik
এস শ্রীসন্থের অভিযোগকে ব্যঙ্গ করলেন Dinesh Karthik
2007 T20 World Cup Final: পাকিস্তানকে হারিয়ে বিশ্ব জয়ের একযুগ
2007 T20 World Cup Final: পাকিস্তানকে হারিয়ে বিশ্ব জয়ের একযুগ
লিয়েন্ডার ৪২ বছরে গ্র্যান্ডস্লাম জিততে পারলে আমি কিছু ক্রিকেটও খেলতে পারব: শ্রীসন্থ
লিয়েন্ডার ৪২ বছরে গ্র্যান্ডস্লাম জিততে পারলে আমি কিছু ক্রিকেটও খেলতে পারব: শ্রীসন্থ
শ্রীসন্থের আজীবন নির্বাসন বাতিল করল সুপ্রিম কোর্ট
শ্রীসন্থের আজীবন নির্বাসন বাতিল করল সুপ্রিম কোর্ট
দোষ মেনে না নিলে পরিবারের সদস্যদের অত্যাচার করার হুমকি দিয়েছিল দিল্লি পুলিশ: শ্রীসন্থ
দোষ মেনে না নিলে পরিবারের সদস্যদের অত্যাচার করার হুমকি দিয়েছিল দিল্লি পুলিশ: শ্রীসন্থ
Advertisement