'এক রাজ্যে এক ভোট'-এ বোর্ড কর্তাদের স্বস্তি দিল সুপ্রিম কোর্টের রায়

Updated: 09 August 2018 13:38 IST

পাশাপাশি বোর্ড কর্তাদের স্বস্তি দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট জানায় লোধা কমিটির সুপারিশে তিন বছর নয়, ছ' বছর পর কুলিং অফ বা সাময়িক বিশ্রামে সরতে হবে বোর্ডের পদে থাকা কর্তাদের।

BCCI gets relief from Supreme Court on ‘one state, one vote’ policy
'এক রাজ্যে এক ভোট'-এ রায় দিল সুপ্রিম কোর্ট © পিটিআই

বহু প্রতীক্ষিত ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সংক্রান্ত মামলার রায় জানাল দেশের সর্বোচ্চ আদালত। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে 'এক রাজ্য, এক ভোট' নিয়মে পরিবর্তন আনল সুপ্রিম কোর্ট। 'এক রাজ্যে এক ভোট'-নিয়ে লোধা কমিটির সংস্কার খারিজ করল দেশের সর্বোচ্চ আদালত। সুপ্রিম কোর্ট আজ রায় দিয়ে জানায়, মুম্বই, মহারাষ্ট্র, বিদর্ভ এবং ক্রিকেট ক্লাব অব ইন্ডিয়া (সি সি আই)-কে বিসিসিআইয়ের স্থায়ী সদস্যপদ দেওয়া হল। ফলে বোর্ডের নির্বাচনে ভোটাধিকার ফিরে পেল মুম্বই সহ এই তিন সংস্থা। রাজেন্দ্রমল লোধা কমিটির সুপারিশ ছিল বোর্ডের নির্বাচনে স্বচ্ছতা আনার জন্য একটা রাজ্য থেকে একটা ভোটাধিকার থাকবে। ফলে মহারাষ্ট্রের চার সংস্থা - মুম্বই, মহারাষ্ট্র, বিদর্ভ এবং ক্রিকেট ক্লাব অব ইন্ডিয়া (সি সি আই) একটাই ভোট হয়ে গিয়েছিল। মানে লোধা কমিটির নিয়মে প্রতি বছর একটি করে সংস্থা ভোট দিতে পারত। রঞ্জি ট্রফিতে সফলতম রাজ্য মুম্বই ভোট দিতে পারত চার বছরে এক বার। তবে  সুপ্রিম কোর্ট পুরনো নিয়মই বহাল রাখল। সুপ্রিম কোর্টের চূড়ান্ত রায়ের পর সংবিধান সংশোধন করে বোর্ডের নির্বাচন করতে হবে। একটি রাজ্য থেকে একটির বেশি ভোট ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাচনে যে দেওয়া যাবে না, সেই সুপারিশও করা হয়েছে। পাশাপাশি বোর্ড কর্তাদের স্বস্তি দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট জানায় লোধা কমিটির সুপারিশে তিন বছর নয়, ছ' বছর পর কুলিং অফ বা সাময়িক বিশ্রামে সরতে হবে বোর্ডের পদে থাকা কর্তাদের।

লোধা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী, দেশের ক্রিকেট কর্তাদের বয়সসীমা সত্তর বছর বয়সের বেশি হলে কেউ রাজ্য কিংবা বোর্ডের কোনও পদে থাকতে পারবেন না। পাশাপাশি বোর্ড কর্তাদের পদের মেয়াদ ও ক্রিকেটের সার্বিক উন্নয়নের জন্য ঢালাও পরিবর্তনের সুপারিশ করা হয়েছিল লোধা-র রিপোর্টে। তিন বছর অন্তর তিন বছর সাময়িক বিশ্রামে যাওয়ার সুপারিশ করেছে লোধা কমিশন। যাকে বলা হয়েছিল, কুলিং অফ পিরিয়ড। আজ এই বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে জানানো হয় পরপর দু'বার বোর্ডের কোনও পদে থাকার পর কুলিং অফ পিরিয়ড বা সাময়িক বিরতিতে যেতে হবে। মানে ছ' বছর পর কুলিং অফ বা সাময়িক বিশ্রামে সরতে হবে বোর্ডের পদে থাকা কর্তাদের।

এদিকে, ভারতের জাতীয় ক্রিকেট দলের নির্বাচকদের পারিশ্রমিক অনেকটা বাড়ানো হল। নির্বাচকরা কোটি টাকার কাছে বেতন পেতে চলেছেন৷ নির্বাচক প্রধানের পারিশ্রমিক এক কোটি টাকা হল। সিনিয়র জাতীয় দলের নির্বাচকদের বার্ষিক পারিশ্রমিক ছিল 60 লক্ষ টাকা৷ সেটা বেড়ে হল 90 লক্ষ টাকা। আর এই নির্বাচক কমিটির প্রধানের বার্ষিক পারিশ্রিমক বেড়ে হল এক কোটি টাকা। এখন ভারতীয় দলের নির্বাচক কমিটির প্রধান হলেন প্রাক্তন উইকেটকিপার এমএসকে প্রসাদ। দেবাং গান্ধী ও শরনদীপ সিং নির্বাচক কমিটির বাকি দুই সদস্য।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)
Comments
হাইলাইট
  • 'এক রাজ্যে এক ভোট'-নিয়ে লোধা কমিটির সংস্কার খারিজ করল দেশের সর্বোচ্চ আদাল
  • বোর্ডের নির্বাচনে ভোটাধিকার ফিরে পেল মুম্বই সহ এই তিন সংস্থা
  • 'এক রাজ্যে এক ভোট'-এ বোর্ড কর্তাদের স্বস্তি দিল সুপ্রিম কোর্টের রায়
সম্পর্কিত খবর
BCCI Meeting: ম্যাচের সময় নিয়ে আলোচনা করবে আইপিএল-এর কার্যকরী কমিটি
BCCI Meeting: ম্যাচের সময় নিয়ে আলোচনা করবে আইপিএল-এর কার্যকরী কমিটি
জাতীয় নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যানের পদের দৌঁড়ে Ajit Agarkar
জাতীয় নির্বাচক কমিটির চেয়ারম্যানের পদের দৌঁড়ে Ajit Agarkar
New Zealand vs India: ব্যস্ত সূচির অভিযোগ বিরাট কোহলির, কী বললেন বিসিসিআই কর্তা
New Zealand vs India: ব্যস্ত সূচির অভিযোগ বিরাট কোহলির, কী বললেন বিসিসিআই কর্তা
নিউজিল্যান্ড সিরিজে অনিশ্চিত হয়ে পড়লেন Ishant Sharma
নিউজিল্যান্ড সিরিজে অনিশ্চিত হয়ে পড়লেন Ishant Sharma
চোখে জল টিম ইন্ডিয়ার, "সুপারফ্যান" Charulata Patel-কে শেষ শ্রদ্ধা জানাল BCCI
চোখে জল টিম ইন্ডিয়ার, "সুপারফ্যান" Charulata Patel-কে শেষ শ্রদ্ধা জানাল BCCI
Advertisement