জোড়া শিকার করে ধোনি এখন একাই আটশো

Updated: 28 September 2018 21:45 IST

ধোনির 800তম শিকার হন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি মোতার্জা।  এর আগে আজকের ম্যাচে কুলদীপ যাদবের বলে লিটন দাসকে (132) স্ট্যাম্পিং করেন ধোনি।     

Yet Another Cap In MS Dhoni
এশিয়ার প্রথম উইকেটকিপার হিসেবে 800 শিকার ধোনির © এএফপি

শুক্রবার দুবাইয়ে এশিয়া কাপের ফাইনালে বড় নডির গড়লেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। প্রথমে ব্যাট করে লিটন দাসের অনবদ্য সেঞ্চুরির পরেও বাংলাদেশ মাত্র 222 রানে গুটিয়ে যাওয়ার পছনে ধোনির বড় অবদান থাকল। বাংলাদেশের ইনিংসের পাঁচটা উইকেট যায় রান আউট ও স্ট্যাম্পিংয়ে। কুলদীপ যাদবের বলে ধোনি দুটি স্ট্যাম্পিং করেন। এর ফলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিনটি ফর্ম্যাট মিলিয়ে ধোনির 800টি শিকার (ক্যাচ+স্ট্যাম্পিং)  হয়ে গেল। ধোনির আগে শুধু দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন উইকেটকিপার মার্ক বাউচার (998) ও অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি কিপার অ্য়াডাম গিলক্রিস্ট (905)। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি শিকার করে বিশ্বের সর্বকালের তালিকায় ধোনি তিন নম্বরে। এশিয়ার মধ্যে সবার আগে। ধোনির 800তম শিকার হন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি মোতার্জা।  এর আগে আজকের ম্যাচে কুলদীপ যাদবের বলে লিটন দাসকে (132) স্ট্যাম্পিং করেন ধোনি।     

এশিয়া কাপের ফাইনালে জোড়া স্ট্যাম্পিংয়ের সুবাদে ধোনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি স্ট্যাম্পিং করা উইকেটকিপারের তালিকায় শীর্ষস্থানটা আরও মজবুত করলেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ধোনির 184টি স্ট্যাম্পিং হয়েে গেল। ধোনির ঠিক পিছনে যারা আছেন তারা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে থেকে অবসর নিয়ে নিয়েছেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশ স্ট্যাম্পিংয়ের বিষয়ে ধোনির পিছনে আছেন শ্রীলঙ্কার দুই প্রাক্তন উইকেটকিপার কুমারা সাঙ্গাকারা (139) ও রমেশ কালুবিতারানা (101)।   

 বাংলাদেশের ইনিংসটা ঠিক যেন ধুমকেতুর মত হল। জ্বলে, নিভল। ওপেনিং জুটিতে 120 রান তোলার পর, বাংলাদেশের ব্য়াটিং ধস নামে। তারপর 31 রানের মধ্যে বাংলাদেশ হারায় 5 উইকেট। সেখানেই পদ্মাপাড়ের দেশের দুরন্ত শুরুটায় জল পড়ে গেল। লিটন দাসের অনবদ্য 117 বলে 121 রানের ইনিংসের পরেও বাংলাদেশ 222 রানে গুঁটিয়ে গেল। সপ্তমবার এশিয়া কাপ জিততে ভারতের চাই 223 রান। শেষের দিকে সৌম্য সরকারের 33 রানের ইনিংসটা বাংলাদেশকে 200 রানে টপকালো। কুলদীপ যাদব ইনিংসের গুরুত্বপূর্ণ দুটি উইকেট পান। উইকেটের জন্য প্রথম কুড়িটা ওভার মাথাকুটে মরে যাওয়া ভারতীয় দলকে প্রথম উইকেটটা এনে দেন কেদার যাদব। কেদার ফেরান ওপেনার হিসেবে নামা মিরাজকে। তারপর চলতি এশিয়া কাপে বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যান মুশফিকুরকে আউট করেন। কুলদীপ যাদব 45 রান দিয়ে নিলেন 3টি উইকেট। চাহাল, বুমরা একটি করে উইকেট নেন। ভারতীয় ফিল্ডিং দারুণ হয়। ধোনি উইকেটের পিছনে দারুণ ভূমিকা নেন। ধোনি দুটি স্ট্যাম্পিং করেন, এবং একটি রান আউটের পিছনে বড় ভূমিকা নেন। বাংলাদেশের পাঁচজন ব্যাটসম্যান রান আউট ও স্ট্যাম্পিংয়ের জন্য আউট হন। কুলদীপের বলে বাংলাদেশের দুজন ব্যাটসম্যান স্ট্যাম্পিং হন আর তিনজন রান আউট হন।       

Comments
হাইলাইট
  • এশিয়া কাপের ফাইনালে উইকেটের পিছনে অপ্রতিরোধ্য ধোনি
  • আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে 800টি শিকার ধোনির
  • আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি স্ট্যাম্পিংয়র বিশ্বরেকর্ডটা ধোনির দখলে
সম্পর্কিত খবর
এমএস ধোনির পাঁচে ব্যাট করা উচিৎ:  তেন্ডুলকর
এমএস ধোনির পাঁচে ব্যাট করা উচিৎ: তেন্ডুলকর
IPL Final, MI vs CSK: শেষ বলে ১ রানে জিতে চ্যাম্পিয়ন মুম্বই ইন্ডিয়ান্স
IPL Final, MI vs CSK: শেষ বলে ১ রানে জিতে চ্যাম্পিয়ন মুম্বই ইন্ডিয়ান্স
আইপিএল ২০১৯ ফাইনালের আগে দুই দলের অতীত-বর্তামান
আইপিএল ২০১৯ ফাইনালের আগে দুই দলের অতীত-বর্তামান
IPL 2019 Final, MI Vs CSK: ভারতীয় ক্রিকেটের দুই সেরার ফাইনাল লড়াই
IPL 2019 Final, MI Vs CSK: ভারতীয় ক্রিকেটের দুই সেরার ফাইনাল লড়াই
চেন্নাইকে লিভারপুলের মতো খেলতে হবে: ভিভ রিচার্ডস
চেন্নাইকে লিভারপুলের মতো খেলতে হবে: ভিভ রিচার্ডস
Advertisement