বিশ্বকাপে ঠিক যে মুহূতটা টুইটারে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হয়

Updated: 18 July 2018 22:36 IST

টিনেজার হিসেবে বিশ্বকাপের ফাইনালে গোল করে পেলেকে ছুঁলেন এমবাপে।

FIFA World Cup 2018: Kylian Mbappes World Cup final goal generated 115 bn views
গোলের পর এমবাপের উচ্ছ্বাস © এএফপি

রাশিয়া বিশ্বকাপ সব দিক থেকে জমজমাট-নাটকীয় হয়ে ওঠে। চার বছর আগে যখন ব্রাজিলে বিশ্বকাপ হয়েছিল তখনও সোশ্যাল মিডিয়ায় এতটা রমরমা ছিল না, যেটা এবার রাশিয়া বিশ্বকাপে দেখা গেল। অন্য যে কোনও সোশ্যাল মিডিয়াকে টেক্কা দিয়ে টুইটারে এবার বিশ্বকাপের নানা মুহূর্ত, ভিডিও ভাইরাল হয়। মাইক্রো ব্লগিং সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে 115 বিলিয়ন ইমিপ্রেশন হয় রাশিয়া বিশ্বকাপ চলাকালীন। বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার পর দেখা যাচ্ছে এবার টুর্নামেন্টে সবচেয়ে জনপ্রিয় মুহূর্তের ভিডিও হল ফ্রান্স তারকা কিলিয়ান এমবাপের গোল। মাত্র 19 বছর বয়েসে বিশ্বকাপের ফাইনালে করা এমবাপের গোলটা ছিল ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে ফ্রান্সের নাটকীয় ফাইনাল ম্যাচের চতুর্থ নম্বর গোল। আর পেলের নজির ছুঁয়ে টিনেজারা এমবাপের করা এই গোল টুইটারে এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে চর্চিত ও জনপ্রিয় মুহূর্তে। ফাইনালে করা এমবাপের সেই ঐতিহাসিক গোল টুইটারে দেখা হয় 115 বিলিয়ন বার। 

টুইটারের অফিসিয়াল হিসেব বলছে, টুর্নামেন্টের 64টি ম্যাচের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হয় ফ্রান্স বনাম ক্রোয়েশিয়া ফাইনাল ম্যাচটাই। চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলেও সবচেয়ে আলোচিত, টুইটারের পরিভাষায় যাকে বলে 'মোস্ট মেনসনড টিম'-হয় ব্রাজিল। যে ব্রাজিলকে রাশিয়ায় সম্ভাব্য বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হিসেবে ধরা হয়েছিল। তবে নেইমাররা কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নেন। ব্রাজিলের পরেই 'মোস্ট মেনসনড টিম'-হয় বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয় ফ্রান্স। মানে ব্রাজিলকে বিয়ে গোটা বিশ্বে এত আগ্রহ তারা অনেক আগেই বিদায় নিলেও তারাই আকষর্ণের কেন্দ্রবিন্দু হয়। টুইটারে নেইমার, এমবাপেদের দেশের পরেই 'মোস্ট মেনসনড টিম'-এর মর্যাদা পায় মেসির আর্জেন্টিনা। 

গত রবিবার মস্কোর লিঝনিকি স্টেডিয়ামে ফাইনালে ম্যাচের 65 মিনিটে দারুণ শটে এমবাপের গোলের সময় টুইটারে সবচেয়ে বেশি পোস্ট দেখা যায়। যা পুরো টুর্নামেন্টের অন্য কোনও সময় হয়নি। ব্রাজিলের নেইমারের চোট পেয়ে মাঠে গড়াগড়ির ঘটনাটা টুইটারে সবচেয়ে বেশি ভাইরাল হয়েছিল। ফাইনাল ম্যাচের সময়ই টুইটারে ইউজাররা সবচেয়ে সক্রিয় থাকেন। মেসি, রোনাল্ডোদের মত এমবাপেও টুর্নামেন্টে টুইটারে জনপ্রিয় তারকা হন।    

ফ্রান্সের কিলিয়ান এমবাপে ফাইনালে গোল করেন 19 বছর 207 দিন বয়সে। টিনেজার হিসেবে বিশ্বকাপের ফাইনালে গোল করে পেলেকে ছুঁলেন এমবাপে। যদিও বিশ্বকাপের ফাইনালে কনিষ্ঠতম ফুটবলার হিসেবে গোল করার রেকর্ডটা পেলের দখলেই থাকল। যে বছর ফ্রান্স প্রথমবার বিশ্বকাপ জিতেছিল, সেই বছরই জন্মেছিলেন এমবাপে। জিদানরা বিশ্বকাপ জিতেছিলেন জুলাইয়ে, আর এমবাপে জন্মেছিলেন ডিসেম্বরে। এমবাপে পেয়ে গেলেন মিনি পেলের স্বীকৃতি। বিশ্বকাপের গ্রুপের দ্বিতীয় ম্যাচে পেরুর বিরুদ্ধে গোল করেছিলেন এমবাপে। বিশ্বকাপে টিনেজার হিসেবে গোল করে সেদিনই স্পর্শ করেছিলেন পেলেকে। এরপর এমবাপে মেসিদের বিরুদ্ধে নক আউটে জোড়া গোল করে ফের পেলের রেকর্ড স্পর্শ করেন। খোদ পেলে তাঁকে শুভেচ্ছাবার্তা পাঠান। আর বিশ্বকাপে মোট চারটি গোল করে এমবাপে সেরা প্রতিভাবান ফুটবলারের পুরস্কার।



(এনডিটিভি এই খবর সম্পাদিত করেনি, এটি সিন্ডিকেট ফিড থেকে সরাসরি প্রকাশ করা হয়েছে.)
Comments
হাইলাইট
  • ফাইনালে দুরন্ত গোল করেন এমবাপে
  • পেলের পর বিশ্বকাপের ফাইনালে সবচেয়ে কম বয়েসে গোল করেন এমবাপে
  • ব্রাজিলকে নিয়েই টুইটারে মাতামাতি বেশি হয়
সম্পর্কিত খবর
প্যারিসের হাসপাতালে ভর্তি পেলে, সুস্থ হচ্ছেন তিনি
প্যারিসের হাসপাতালে ভর্তি পেলে, সুস্থ হচ্ছেন তিনি
লাল ব্লেজার, লাল ক্রাচে ২৭ বছরের জন্মদিন মাতালেন নেইমার
লাল ব্লেজার, লাল ক্রাচে ২৭ বছরের জন্মদিন মাতালেন নেইমার
জিরো দশা কাটিয়ে গোল করে ফরাসিদের দুরন্ত জয়ে জিরু-ই হিরো
জিরো দশা কাটিয়ে গোল করে ফরাসিদের দুরন্ত জয়ে জিরু-ই হিরো
ফিফার বর্ষসেরা তালিকায় নেইমার নেই, তাহলে মেসি-রোনাল্ডোর সঙ্গে কারা আছেন
ফিফার বর্ষসেরা তালিকায় নেইমার নেই, তাহলে মেসি-রোনাল্ডোর সঙ্গে কারা আছেন
বিশ্বকাপে ঠিক যে মুহূতটা টুইটারে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হয়
বিশ্বকাপে ঠিক যে মুহূতটা টুইটারে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হয়
Advertisement